রবিবার , আগস্ট ২০ ২০১৭ | ৫ই ভাদ্র, ১৪২৪ বঙ্গাব্দ
Breaking News
Home / খেলাধুলা / কেকেআর-হায়দরাবাদের জয়: আজও খেলননি সাকিব-মোস্তাফিজ

কেকেআর-হায়দরাবাদের জয়: আজও খেলননি সাকিব-মোস্তাফিজ

সোমবারও আইপিএলে কলকাতার প্রথম একাদশে ঠাঁই হয়নি সাকিবের অন্যদিকে হায়দরাবাদও এদিন মোস্তাফিজকে ছাড়াই খেলতে নামে।

তবে সাকিবকে ছাড়াই কলকাতা ও মোস্তাফিজবিহীন হায়দরাবাদও জয়বঞ্চিত হয়নি। হায়দ্রাবাদ ৫ রানে হারিয়েছে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবকে। নিজেদের মাঠে প্রথমে ব্যাট করে হায়দরাবাদ ছয় উইকেটে ১৫৯ রান তোলে । জবাবে পাঞ্জাব ১৫৪ রানে অলআউট হয়।

আইপিএলে কলকাতা নাইটরাইডার্স যখন প্রথম ম্যাচ খেলতে নামে, সাকিব আল হাসান তখন বাংলাদেশ দলের সঙ্গে শ্রীলংকায়। দলে যোগ দেয়ার পর পরের তিন ম্যাচেও মাঠের বাইরে তিনি। কেন এই উপেক্ষা তা কেকেআরই বলতে পারবে।

সোমবার দিল্লি ডেয়ারডেভিলসের বিপক্ষেও সাকিবকে ছাড়াই খেলতে নামে কলকাতা। তাতে অবশ্য কেকেআরের জয়যাত্রায় ছেদ পড়েনি। মনীশ পাণ্ডে ও ইউসুফ পাঠানের ঝড়ো ফিফটিতে দিল্লিকে (১৬৮/৭) চার উইকেটে হারিয়ে পয়েন্ট টেবিলে শীর্ষে উঠে এসেছে কলকাতা (১৬৯/৬)। পাঁচ ম্যাচে এটি তাদের চতুর্থ জয়।

সোমবার দিল্লির মাঠে এক বল হাতে রেখে কলকাতার রোমাঞ্চকর জয়ের নায়ক পাণ্ডে। শেষ ওভারের চতুর্থ বলে অমিত মিশ্রকে ছক্কা হাঁকিয়ে ম্যাচ নিজেদের মুঠোয় নিয়ে আসেন তিনি। ৪৯ বলে অপরাজিত ৬৯ রানের সুবাদে পাণ্ডেই হয়েছেন ম্যাচসেরা।

৩৯ বলে ৫৯ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে দলের জয়ে বড় অবদান রেখেছেন ইউসুফ পাঠানও। মাত্র ২১ রানে তিন উইকেট হারিয়েছিল কলকাতা।

চতুর্থ উইকেটে ১১০ রানের জুটি গড়ে ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দেন পাণ্ডে ও পাঠান।

এর আগে নিজেদের মাঠ ফিরোজ শাহ কোটলায় আইপিএলের ১৮তম ম্যাচে দিল্লি টসে জিতে প্রথমে ব্যাট করে ১৬৮ রান তোলে সাত উইকেটে। বড় রান কারও নেই। ওপেনার স্যামসন ২৫ বলে ৩৯, বিলিংস ১৭ বলে ২১, আয়ার ১৭ বলে ২৬ এবং ঋষভ পান্থ ১৬ বলে ৩৮ রান করেন। তিনটি চারের সহায়তায় নয় বলে ১৬ রান আসে ক্রিস মরিসের ব্যাট থেকে। টি ২০তে ১০০০ রান পূর্ণ হল তার। তিনটি উইকেট নেন নাথান কোল্টার-নাইল। সনি সিক্স।

About Shishir

A positive person can be change the society.

Check Also

বার্নাব্যুতে বায়ার্নের অগ্নিপরীক্ষা

রিয়াল মাদ্রিদ ছুটছে বলগা ঘোড়ার মতো। ম্যাচের পর ম্যাচ প্রতিপক্ষকে উড়িয়ে দিচ্ছে তারা। ঘরের মাঠে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *